স্মৃতি কিভাবে তৈরি হয়?

পড়া কেন মনে থাকে না? স্মরণশক্তিটা যদি আরেকটু ভালো হতো? আহা লোকটার নাম ভুলে গেলাম? বাড়ির ঠিকানাটা যেন কি ছিলো? স্মৃতি নিয়ে আমাদের অভিযোগের শেষ নেই। তবে বিভিন্ন তথ্য মনে রাখতে পারি জন্যেই আমরা দৈনন্দিন কাজ করতে পারি। নাইলে কবেই সব ভেস্তে যেত। তথ্য মনে রাখার প্রক্রিয়াটা কি ধরণের? আমরা কি মাথার কোটরের মধ্যে একেকটা তথ্য গুঁজে রাখি? মস্তিষ্ক কি একটা ফাইল কেবিনেটের মতো যার একেকটা ড্রয়ারে একেকটা তথ্য স্মৃতি হিসেবে জমা হয়? স্নায়ুবিজ্ঞানের সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে মস্তিষ্কে স্মৃতি জমা রাখার প্রক্রিয়াটা ভিন্ন ধরনের। আসলে জীবনের ঘটনাবহুল স্মৃতিগুলোর টুকরো টুকরো অংশ মস্তিষ্কের একেক জায়গার স্নায়ুসংযোগে জমা থাকে। আমরা যখন মনে বিস্তারিত

দেজাভুঁ – একটি অদ্ভূত অভিজ্ঞতা

মনোবিজ্ঞানের বিশেষ শাখাই আছে যেখানে স্মৃতি নিয়ে কাজ করা হয়। স্মৃতিমনোবিজ্ঞানীরা দেখেছেন, আমাদের অতীতে যা  ঘটেছিলো সেই স্মৃতির সাথে যুক্ত থাকে কোথায় ঘটনাটা ঘটেছিলো বিষয়ক স্মৃতি। এই পরবর্তী কোথায় ঘটনা ঘটেছিলো বিষয়ক স্মৃতিকে বলে সূত্র-স্মৃতি।

দেজাভুঁতে অপরিচিত ঘটনাকে পরিচিত ঘটনা মনে হয়। আমরা কিভাবে বুঝতে পারি যে আমরা পরিচিত ঘটনাপ্রবাহের মধ্যেই আছি? আসলে এর জন্য দুইটি পদ্ধতি আছে। পূর্বের অবস্থা (situation) থেকে স্মৃতি তুলে আনা হলো একটি পদ্ধতি। যেমন আপনি হয়তো আপনার শৈশবের গ্রামে চলে গেছেন। তখন আপনার মনে হবে কোন মাঠে আপনি খেলতেন, কোন আমগাছ থেকে আপনি পড়ে গিয়েছিলেন ইত্যাদি।