ভবিষ্যত প্রযুক্তি,মোবাইলের মাধ্যমেই বিভিন্ন দূরের বস্তু ধরতে পারবেন

কেমন হতে পারে আমাদের ভবিষ্যত প্রযুক্তি।আই.বি.এম এর গবেষকরা সাধারনত প্রতি বছর ভবিষ্যত প্রযুক্তি গুলোনিয়ে ভবিষ্যতবাণী করে থাকেন।তবে তারা নিকট ভবিষ্যত নিয়েই ভবিষ্যতবাণী করেন।তারা এমন পাঁচটি ভবিষ্যত প্রযুক্তির কথা বলে থাকেন যেগুলো পাঁচ বছরের মধ্যেই আমাদের জীবন সম্পূর্ণ বদলে দিবে।এটা আই.বি.এম. ৫*৫ আর্টিকেল নামেও পরিচিত।এবারের পাঁচটি ভবিষ্যতবাণীর মধ্যে একটি হল,আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে আমরা ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে বাজার করতে পারব, পন্যর গঠনটা বুঝতে পারব,পন্যটি ধরতে পারব।অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে এটা কিভাবে সম্ভব?আসলে পন্যটির গঠন অনুভূতি পাওয়া মানেই পন্যটি নিজ হাতে ধরা হবেনা।আপানাকে শুধু ভায়ব্রেশন এর মাধ্যমে আপনার ফোনের স্ক্রিন বস্তুটির অনুভূতি দিবে। মনে করুন আপনি পন্যটি নিজ হাতে ধরে বিস্তারিত

রোবটও পেল স্পর্শ অনূভুতি

  প্রযুক্তির দিন দিন উন্নতি ঘটে চলেছে।আই.বি.এম তো ঘোসনা দিয়েছে পাঁচ বছরের মধ্যেই আমরা মোবাইল বা কম্পিউটার স্ক্রিন এর মাধ্যমে দূরের জিনিস ধরতে পারব।এই ভবিষ্যত বাণীটা ঠিক হওয়ার দিকে আমরা একধাপ কিন্তু এগিয়ে গেছি।বিজ্ঞানিরা যন্ত্রের মধ্যে বিভিন্ন বস্তুর স্পর্শ অনূভুতি জাগাতে সক্ষম হয়েছেন। এখানে যন্ত্রটি হল এক ধরনের মানুষের মত রোবট।ইউনিভার্সিটি অফ সাউর্দান ক্যালিফোর্নিয়া ভাইটারভি স্কুল অফ ইঞ্জিনিয়ারিং এর বিজ্ঞানিরা এমনই একটি রোবর্ট তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন এবং এ সম্বন্ধে একটি লিখা প্রকাশ করেছেন।তারা এই রোবটটির হাতে এক ধরনে বিশেষ সেন্সর ব্যবহার করেছেন।এই সেন্সর এর গঠন অনেকটা মানুষের আঙলের মত।এর উপরে বিশেষ ভাবে গঠিত চামড়া থাকে এবং তাতে তরল পদার্থের বিস্তারিত