কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা লিখেছে রূপকথার গল্প

ঠাকুরমার ঝুলি কিংবা সিন্ডারেলার গল্প আমরা অনেকে শুনেছি। এরকম রূপকথার গল্পগুলোর সবই মানুষের দ্বারা তৈরি হয়েছে। কেমন হবে যদি কোনো যন্ত্র কিংবা কোনো কম্পিউটার প্রোগ্রাম এরকম একটি গল্প লিখে?

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এখন বিজ্ঞান জগতের ট্রেন্ড। যন্ত্রের কোনো বুদ্ধিমত্তা থাকে না সাধারণত। তবে বিশেষভাবে প্রোগ্রামের মাধ্যমে যন্ত্রকে কৃত্রিমভাবে বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন করা যায়। যন্ত্রকে এমনভাবে তৈরি করা হয় যেন তাকে কোনো কাজ করতে দিলে সেটি আগে থেকে রাখা তথ্য কিংবা স্মৃতি ব্যবহার করে সে কাজটি সম্পন্ন করতে পারে। তেমনই আগে থেকেই যদি একে বিভিন্ন দেশের রূপকথার গল্পগুলো শেখানো যায় এবং সে অনুসারে নতুন কোনো গল্প লিখতে বলা হয় তাহলে সেটি ভালো কোনো গল্প লিখেও ফেলতে পারে।

আইএফএল সায়েন্স-এ প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয় এক কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা লিখেছে রূপকথার এক গল্প। সে গল্পের নাম ‘রাজকুমারী ও শেয়াল’। সেখানে সাধারণ রূপকথার গল্পের মতোই আছে মায়াবী এক রাজকন্যা ও এক রাজা। রাজা তাকে তার ইচ্ছের বিরুদ্ধেই বিয়ে দিয়ে দেয়। আরো আছে কথা বলতে পারা প্রাণী, আছে একটি ‘রুটি ও ক্ষীরের রাজ্য’। (আইএফএল সায়েন্স)

আপনার মতামত

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

গ্রাহক হতে চান?

যখনই বিজ্ঞান ব্লগে নতুন লেখা আসবে, আপনার ই-মেইল ইনবক্সে চলে যাবে তার খবর।